মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সিটিজেন চার্টার

সিটিজেন চার্টার

 

জেলা সমবায় কার্যালয়, মৌলভীবাজার , সমবায় অধিদপ্তর, ঢাকা এর অধীনস্থ একটি সরকারী প্রতিষ্ঠান। ১৯০৪ সাল থেকে এদেশের জনগণকে সমবায়ের ৭টি আদর্শে উদ্ভুদ্ধ করে এ প্রতিষ্ঠান দেশের সকল শ্রেণীর ও পেশার জনগনের আর্থ সামাজিক উন্নয়ন কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও দারিদ্র দূরীকরনের জন্য কাজ করে আসছে। সমবায়ের ভিত্তি হচ্ছে গণতন্ত্র, সাম্য ও সংহতি এবং এর লক্ষ্য হচ্ছে স্বাবলম্বিতাও স্বনির্ভরতা। মূলতঃ কৃষি নির্ভরঅর্থনীতিকে সমর্থন করার জন্য এদেশে সমবায়ের সূচনা হলেও বর্তমানে অর্থনীতির প্রায় সকল ক্ষেত্রে সমবায় তার কার্যক্রমকে বিস্তৃত করেছে।

 

প্রত্যাশাঃগণতন্ত্রমনা দুর্নীতিমুক্ত, স্বচ্ছ জবাবদিহিতামূলক নারী পুরুষ নির্বিশেষে সুশিক্ষিত ও সুদক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলার মাধ্যমে সমবায় আন্দোলনকে বেগবান করা।

 

লক্ষ্যঃধনী, দরিদ্র নির্বিশেষে স্বীয় চেষ্টায় উন্নয়নে প্রত্যয়ী জনগোষ্ঠীকে সমবায়ের মাধ্যমে সংগঠিত করেউদ্যোক্তা সৃষ্টি ও পুঁজি বিনিয়োগের মাধ্যমে স্বকর্মসংস্থান ও আত্ননির্ভরশীল করেদারিদ্র দূরীকরণ। শিক্ষা ও প্রশিক্ষনের মাধ্যমে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করেদেশে সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের সহযোগিতা মূলক অংশ গ্রহন নিশ্চিত করা।

 

সেবাসমূহঃ

০১। আইনগত সেবাঃ সমবায় সমিতি আইন/২০০১ (সংশোধিত/২০০২) ও সমবায় সমিতি বিধিমালা/২০০৪ মোতাবেক আইনগত সেবাসমূহঃ

 ক)নিবন্ধন ও উপ-আইন সংশোধনঃ

 ›বৈধ উপায়ে নিজেদের আর্থ সামাজিক অবস্থার উন্নয়নের জন্য নূন্যতম ২০(বিশ)জন একক ব্যক্তি সমন্বয়ে গঠিত প্রাথমিক সমবায় সমিতি নিবন্ধন প্রদান করা হয়।

  • ১. উপ-আইন নিবন্ধনের মাধ্যমে ১(এক)টি সমবায় সমিতি আইনগত ভিত্তি লাভ করে। সমিতির সাধারণ সদস্যদের সিদ্ধান্তের আলোকে উপ-আইন পরিবর্তন করা যায়।

২. উপজেলা সমবায় অফিসার কর্তৃক বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড সমর্থনপুষ্টি প্রাথমিক সমবায় সমিতির নিবন্ধন করা হয়।

৩. বি আর ডি বি সমর্থনপুষ্টি প্রাথমিক সমবায় সমিতি ছাড়া অন্যান্য সকল প্রকার সমবায় সমিতির নিবন্ধনকারী কর্তৃপক্ষ হলেন জেলা সমবায় কর্মকর্তা।

৪. সমবায় সমিতি নিবন্ধনের জন্য নিবন্ধন ফি প্রদান করতে হয়। এক্ষেত্রে সর্বনিম্ন নিবন্ধন ফি৫০/=টাকা এবং সর্বোচ্চ নিবন্ধন ফি ৫,০০০/= টাকা। নিবন্ধন ফি সরকারী রাজস্ব।

খ) ব্যবস্থাপনা, অডিট, পরিদর্শন ও অবসায়নঃ

  ›নিবন্ধক কর্তৃক ক্ষমতাপ্রাপ্ত কোন কর্মচারী বা ব্যক্তি দ্বারা সমিতির ব্যবস্থাপনা ও আর্থিক কার্যক্রমের উপর বাৎসরিক নিরীক্ষা সম্পাদন করা হয়।

  ›সমিতিতে সংগঠিত যেকোন নিয়ম নিবন্ধক পরিদর্শন কিংবা তদন্তের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়।

  ›সমিতি অকার্যকর হলে কিংবা সদস্যগণ সমিতি পরিচালনায় অনাগ্রহী হলে নিবন্ধক সমিতিকে অবসায়ন করতে পারেন।

০২।প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ সেবাঃ

  ›প্রশিক্ষণ সেবা প্রদানের জন্য কুমিল্লা শহরের উপকন্ঠে কোটবাড়ীতে রয়েছে দেশের শীর্ষ সমবায় প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ সমবায় একাডেমী। এছাড়াও আঞ্চলিক পর্যায়ে মৌলভীবাজার, মুক্তাগাছা, ফরিদপুর, ফেনী, খুলনা, কুষ্টিয়া, বরিশাল, নওগা এবং  রংপুরে ৯টি আঞ্চলিক সমবায় ইনস্টিটিউট রয়েছে।

›জেলা সমবায় কার্যালয়ের ভ্রাম্যমান প্রশিক্ষণ ইউনিট সমিতিতে গিয়ে সদস্য প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে।

 

অভিযোগ ও নিষ্পত্তিঃ

(ক) উপজেলা পর্যায়ের অভিযোগসমূহ উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা বরাবরেদাখিল করতে হবে।

(খ) জেলা পর্যায়ের অভিযোগ সমূহ জেলা সমবায় কর্মকর্তা বরাবরেদাখিল করতে হবে।

(গ) বিভাগীয় পর্যায়ে অভিযোগসমূহ বিভাগীয় সমবায় কর্মকর্তা বরাবরেদাখিল করতে হবে।

(ঘ) সমিতির মধ্যে সৃষ্ট যে কোন বিরোধ ন্যায় বিচার, সমতা ও সুবিবেচনা প্রসূতভাবে সমবায় সমিতিআইন/২০০১খ্রিঃ এর ধারা ৫০ মোতাবেক নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নিষ্পত্তি করা হয়। রায়ে কেউ সংক্ষুব্দ হলে আপীল করার সুযোগ থাকে।